জাতীয়

তেঁতুলিয়ায় তাপমাত্রা ৫ ডিগ্রিতে

সারাদেশে তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেলেও পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় তাপমাত্রা ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমে এসেছে। সোমবার সকাল ৬টায় ৫ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হলেও ৯টায় তা নেমে এসেছে ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। এর আগে রবিবার সকাল ৯টায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৪ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছিল।

সোমবার সকাল ১০টায় আবহাওয়াবিদ রাশেদুজ্জামান এ তথ্য জানান।

এর আগে সকালে আবহাওয়াবিদ নাজমুল হক জানান, সারাদেশে তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে শীতের প্রকোপ কিছুটা কমেছে। সোমবার সকাল ৬টায় তেঁতুলিয়ায় ৫ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। রবিবার সেখানে ৫ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিল। এছাড়া রাজধানীতে একই সময়ে ১২ দশমিক ৭ ডিগ্রি ছিল। আজ ১৩ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়।

তিনি আরও বলেন, দেশে তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেলেও রাজশাহী ও রংপুর বিভাগে শৈত্যপ্রবাহ অব্যাহত থাকবে। এছাড়া খুলনা, কুষ্টিয়া ও ময়মনসিংহ অঞ্চলে শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে।নতুন বছরের শুরুতেই বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। এ সময় শীতের প্রকোপ আরও বৃদ্ধি পেতে পারে।

তেঁতুলিয়ায় তাপমাত্রার এমন ওঠা-নামায় চরম ভোগান্তিতে রয়েছে সাধারণ মানুষ। উত্তর থেকে বয়ে আসা পাহাড়ি হিমেল হাওয়ার দাপট না কমায় জবুথবু হয়ে পড়েছে জনজীবন। এদিকে রবিবারের ন্যায় আজ সোমবারও সূর্যের দেখা মিলেছে। এতে অনেকেই তীব্র শীত থেকে রক্ষা পেতে রোদ পোহাতে দেখা যায়।

আবহাওয়ার দৃশ্যপটের সংক্ষিপ্তসারে বলা হয়, মওসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে এবং এর বর্ধিতাংশ ভারতের পশ্চিমবঙ্গ এবং বাংলাদেশের পশ্চিমাঞ্চল পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে।

আবহাওয়াবিদরা জানান, ৮ থেকে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা থাকলে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বলা হয়। ৬ থেকে ৮ ডিগ্রি তাপমাত্রা থাকলে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ বলা হয়। ৬ ডিগ্রির নীচে তাপমাত্রা নেমে আসলে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ বলা হয়।

Facebook Comments

Comment here