বিনোদন

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বায়োপিক: শুটিং সেটে আরিফিন শুভ!

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে বায়োপিক নির্মাণ করছেন শ্যাম বেনেগাল। আলোচিত এই চলচ্চিত্রে শেষ পর্যন্ত কারা অভিনয় করছেন, সে বিষয়ে এখনও রয়েছে ধোঁয়াশা। কারণ, পাত্র-পাত্রী বিষয়ে আনুষ্ঠানিক কোনও ঘোষণা আসেনি এখনও।
তবে তার আগেই বিএফডিসির বিভিন্ন স্পটে শুরু হয়েছে চলচ্চিত্রটির শুটিং সেট তৈরির কাজ। যেখানে তৈরি হচ্ছে রাজপথ, দেয়ালে রাজনৈতিক স্লোগান, নেতার ব্যবহৃত গাড়ি প্রভৃতি। সবকিছু ছাপিয়ে নজরে এসেছে জহির রায়হান কালার ল্যাবের পাশের সড়কে নির্মাণ চলতি শুটিং সেটের একটি জিপের সামনে থাকা আরিফিন শুভকে! বাস্তবে নয়, যেখানে শুভর একটি বড় কাটআউট ছবি রাখা হয়েছে। যার গলায় পরানো হলো গাঁদা ফুলের মালা!
যে ছবি দেখে আরও স্পষ্ট হলো−এই ছবিতে বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে সত্যিই অভিনয় করতে যাচ্ছেন ঢাকাই ছবির উল্লেখযোগ্য নায়ক আরিফিন শুভ।
তবে, এই বিষয়ে মৌনতা প্রকাশ করলেও সরাসরি কোনও মন্তব্য করেননি ছবির নির্মাতা শ্যাম বেনেগাল কিংবা আরিফিন শুভ−দুজনের একজনও।
শ্যাম শুধু বাংলা ট্রিবিউনকে এটুকু বলেন, ‘দেখুন এ ব্যাপারে আমার কিছু বলা এখনই শোভা পায় না। এই ছবি উভয় সরকারের প্রযোজনায় নির্মিত হচ্ছে। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকেই আপনারা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানতে পারবেন।’
তিনি আরও ইঙ্গিত দেন, খুব শিগগিরই সরকারের কাছ থেকে বঙ্গবন্ধুসহ অন্যান্য ভূমিকায় কারা অভিনয় করছেন, শিল্পীদের সেই নামের তালিকা আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করা হবে। সেই তালিকায় বাংলাদেশের শিল্পীরা সংখ্যায় অনেক বেশি হলেও ভারতেরও কয়েকজন অভিনেতা-অভিনেত্রী থাকছেন।
জানা গেছে, ছবিটির জমকালো মহরত হতে যাচ্ছে মুজিববর্ষের প্রথম দিনেই (১৭ মার্চ)। মূলত সেই মহরতের অংশ হিসেবে এফডিসিতে শুরু হলো সেট তৈরির প্রক্রিয়া। সেটের সঙ্গে যুক্ত আছেন, এমন কয়েকজন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। যদিও প্রত্যেকেই নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক।
শুক্রবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) এফডিসি ঘুরে দেখা গেছে, প্রায় প্রতিটি শুটিং ফ্লোর, জহির রায়হান কালার ল্যাবের পাশের সড়ক-দেয়ালসহ বেশিরভাগ জায়গায় চলছে ছবি সংশ্লিষ্ট সেট তৈরির কাজ।
একাধিক সূত্র জানিয়েছে, এফডিসি ছাড়াও ঢাকার অদূরে কবিরপুর বঙ্গবন্ধু ফিল্ম সিটিতেও ছবিটির শুটিং হবে।
এদিকে জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে নির্মিতব্য এই বায়োপিকে বঙ্গবন্ধুর মা সায়রা বানুর চরিত্রে অভিনয়ের সম্ভাবনা রয়েছে দিলারা জামানের। ছবিটির সঙ্গে যুক্ত হওয়ার প্রতিক্রিয়ায় সম্প্রতি তিনি দেশের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘‘জানি না ঠিকভাবে করতে পারবো কিনা। তবে ইতিহাসের অংশ হওয়ার এই সুযোগ পেয়ে আমি খুবই সম্মানিতবোধ করছি। আনন্দিত হয়েছি। এত বড় পরিচালক, নিশ্চয়ই আমাকে দিয়ে চরিত্রটা বের করে নেবেন। বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ পড়েছি। তাঁর মা-বাবার সাক্ষাৎকার দেখেছি। আমি অপেক্ষা করছি কাজটা করার জন্য।’’
এছাড়া এই বায়োপিকে খন্দকার মোশতাকের চরিত্রে ফজলুর রহমান বাবু এবং হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর চরিত্রে অভিনয় করার বিষয়ে চূড়ান্ত হওয়ার খবর মিলেছে অভিনেতা-নির্মাতা তৌকীর আহমেদের।
জানা গেছে, বাংলা ভাষায় নির্মিত হচ্ছে ছবিটি। তবে পর্দায় হিন্দি সাবটাইটেল থাকবে।
বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথ প্রযোজনার এই চলচ্চিত্রটির জন্য বাজেট নির্ধারিত হয়েছে ৩৫ কোটি টাকা। এই বাজেটের ৬০ ভাগ দিচ্ছে বাংলাদেশ ও ৪০ ভাগ ভারত সরকার।
বায়োপিকটি নির্মাণে শ্যাম বেনেগালের সহযোগী পরিচালক হিসেবে কাজ করছেন দয়াল নিহালানি। চিত্রনাট্য করেছেন অতুল তিওয়ারি ও শামা জায়েদি। শিল্প নির্দেশনার দায়িত্ব পেয়েছেন নীতিশ রায়। কস্টিউম ডিরেক্টর হিসেবে আছেন শ্যাম বেনেগালের মেয়ে পিয়া বেনেগাল।
আরও জানা গেছে, এই বায়োপিকে উঠে আসবে বাংলাদেশের অভ্যুদয় থেকে পঁচাত্তরে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের নির্মম ট্র্যাজেডি। তারুণ্য থেকে বাংলাদেশের স্বাধীনতা এবং পরবর্তী সময়ের মুজিবের দেখা মিলবে ছবিতে।
চলতি বছরের ১৭ মার্চ শততম জন্মবর্ষে পদার্পণ করবেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। শুরু হবে মুজিববর্ষ। জানা গেছে, সেদিন থেকে শুরু হবে এই সিনেমার শুটিং। এই মুজিববর্ষেই অর্থাৎ ২০২১ সালের ১৭ মার্চের আগেই আন্তর্জাতিকভাবে মুক্তি দেওয়া হবে ছবিটি।
তবে এর সবকিছুই মিলেছে নির্ভরযোগ্য একাধিক সূত্র থেকে। শিগগিরই পুরো ছবির বিষয়ে চূড়ান্ত ঘোষণা আসবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দফতর থেকে।

Facebook Comments

Comment here